Youtube google+ twitter facebook Bangla Font Help

অব্যবস্থাপনায় বিআরটি প্রকল্পে চাপা পড়ে পিষ্ট জীবন

২:৫০ পূর্বাহ্ণ, আগস্ট ১৬, ২০২২

জাতীয় শোক দিবসে দুপুরের আগে পুরান ঢাকায় একটি প্লাস্টিক কারখানায় আগুনে ছয়জনের মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় শোকের মধ্যেই উত্তরায় আরও একটি দুর্ঘটনা দেশবাসীকে বাকরুদ্ধ করেছে। সরকারের গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের কাজ চলার সময় ক্রেন দিয়ে একটি গার্ডার ওপরে ওঠানো হচ্ছিল। ক্রেন উল্টে সেটি প্রাইভেটকারের ওপর পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই পাঁচজনের মৃত্যু হয়। গুরুতর অবস্থায় দুজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকাল সোয়া ৪টার দিকে উত্তরা ৩ নম্বর সেক্টরের প্যারাডাইস টাওয়ারের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গার্ডার পড়ে প্রাইভেটকারটি দুমড়েমুচড়ে গেছে।

ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ক্রেন দিয়ে গার্ডারটি তোলার সময় সেটি ছিটকে গাড়ির ওপর পড়ে যায়। সাধারণত এ ধরনের প্রকল্পে ব্যবস্থাপনার খাতে বড় ব্যয় ধরা থাকে। এর আগে বিমানবন্দর এলাকায় এমন একটি ঘটনার পরও কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।

গত বছর ১৪ মার্চ রাজধানীর বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনের বিপরীতে বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের গার্ডারধসে দুই চীনা নাগরিকসহ চারজন আহত হয়েছিলেন। এ ছাড়া গত ১৫ জুলাই গাজীপুরে একই প্রকল্পের ‘লঞ্চিং গার্ডার’ চাপায় এক নিরাপত্তারক্ষী নিহত হন। আহত হন এক শ্রমিক ও এক পথচারী। তারও আগে ফ্লাইওভার নির্মাণের সময় ঢাকার তেজগাঁও ও মালিবাগ মোড় এবং চট্টগ্রামেও প্রাণহানি হয়েছে। এর মধ্যে ২০১২ সালে চট্টগ্রামের বহদ্দারহাটে ফ্লাইওভারের গার্ডার পড়ে ২৯ জনের প্রাণহানি হয়।

সংশ্লিষ্টরা জানান, বিআরটি প্রকল্পটি সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর, সেতু কর্তৃপক্ষ ও এলজিইডির অধীনে বাস্তবায়নাধীন। তিন সংস্থা মিলে প্রকল্পটির কাজ চললেও সমন্বয়ের অভাব রয়েছে। একই প্রকল্পে বারবার দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনায় টনক নড়েনি কর্তৃপক্ষের। এর সর্বশেষ দৃষ্টান্ত গতকাল বিকালের ভয়াবহ দুর্ঘটনাটি। গার্ডার স্থাপন করা হচ্ছে ক্রেনের মাধ্যমে। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে ক্রেনটি। এর ফলে গার্ডারটি চাপা দেয় একটি প্রাইভেটকারকে। ওই বাহনে ৭ জন যাত্রী ছিলেন। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের অবহেলার বিষয়টি সামনে চলে এসেছে। কারণ, ক্রেন দিয়ে ভায়াডাক্ট উত্তোলন বা স্থাপনকালে ওই এলাকায় নিরাপত্তা বেষ্টনী থাকার কথা। সবাই জানেন যখন ভারী উপকরণ বা সরঞ্জাম ক্রেনের মাধ্যমে হোক আর যে কোনো মাধ্যমে হোক না কেন বহন করতে হলে নিরাপত্তা বেষ্টনী তৈরি করতে হবে আগে। বিআরটি প্রকল্পে এমনটি মানা হয়নি। তা ছাড়া ক্রেন ছিঁড়ে পড়ে যাওয়া বা নিয়ন্ত্রণ হারানোর কারণে ওই ক্রেন অপারেটরের দক্ষতা বা ক্রেনের কারিগরি দিক খতিয়ে দেখা জরুরি। তা ছাড়া বাস্তবায়নকারী সংস্থার সমন্বয়ের ও তদারকির অভাব দৃশ্যমান বলে মনে করা হচ্ছে।

দুর্ঘটনার বিষয়ে ঢাকা বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি) মো. শফিকুল ইসলাম আমাদের সময়কে বলেন, মনিটরিং টিমের কোনো গাফিলতি আছে কি না, সে বিষয়টা তদন্ত করে দেখতে হবে।

২০১২ সালে বিআরটি প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। শেষ করার কথা ২০১৭ সালে। তবে নানা জটিলতায় বারবার পিছিয়েছে কাজ। গত ডিসেম্বর পর্যন্ত কাজ শেষ হয়েছে ৬৮ শতাংশ। আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে এই কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। উত্তরায় ফ্লাইওভারের গতকালের গার্ডার দুর্ঘটনায় প্রাণহানিতে ঠিকাদারি কোম্পানির অবহেলার বিষয়টি উঠে এসেছে পুলিশের বয়ানেও। সেখানে বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট বা বিআরটি প্রকল্পের ফ্লাইওভারের গার্ডার প্রাইভেটকারের ওপরে পড়ার পর সেটি প্রায় পিষ্ট হয়ে যায়। দুজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ প্রকল্পে ঠিকাদার সঠিকভাবে সব সাবধানতা মেনে কাজ করছে কি না, এটি তদারকির দায়িত্ব প্রকল্প কর্তৃপক্ষের। সেটি করা হয় না বলেই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান অবহেলা করে থাকে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। বিআরটি প্রকল্পটি চীনের জিয়াংশু প্রভিন্সিয়াল ট্রান্সপোর্টেশন ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড ও গেজুবা গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড বাস্তবায়ন করছে। এ বিষয়ে তাদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) অ্যাকসিডেন্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পরিচালক অধ্যাপক হাদিউজ্জামান বলেছেন, আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত নিরাপত্তার চর্চাগুলো অনুসরণ করা হলে এই ধরনের দুর্ঘটনা ঘটার কোনো কারণই নেই। এই দুর্ঘটনার পরপর বেশ কয়েকটি প্রশ্ন ওঠে, যার জবাব তাৎক্ষণিক পাওয়া যায়নি। জনবহুল সড়কে কর্মব্যস্ত সময়ে কেন এই কাজ করা হচ্ছিল, দ্বিতীয়ত, এত ভারী একটি বস্তু তোলার সময় নিচ দিয়ে কীভাবে গাড়ি গেল, তৃতীয়ত, কেন ক্রেনটি নিয়ন্ত্রণ হারাল।

[addthis tool="addthis_inline_share_toolbox_nev1"]

পাঠকের মন্তব্য

rss goolge-plus twitter facebook
Design & Developed By:

উপদেষ্টা মন্ডলির সভাপতি- ফারজানা ইয়াসমিন রিমি

প্রকাশক ও সম্পাদক  : এম. জাহিদ 

বার্তা- সম্পাদক : মেহেদী  হাসান
সহ- ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: শহিদুল্লাহ সুুুমন

  • বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়-

ভূইয়া ভবন, ৩য় তলা

ফকিরবাড়ী রোড, বরিশাল।

  • যোগাযোগ- ০১৭৯২০৫৯০৩২

ই-মেইল: mjahidbsl@gmail.com

টপ
  এইচএসসি পরীক্ষা হবে ২ ঘণ্টা, কমলো নম্বর   আন্দোলন লাগে না, যৌক্তিক দাবি প্রধানমন্ত্রী সহজেই পূরণ করেন: শিক্ষামন্ত্রী   শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে যা বললেন শিক্ষামন্ত্রী   আগামী ৫ জানুয়ারি একাদশে ভর্তির আবেদন শুরু   বিশাল সিলেবাসের পরীক্ষা আর হবে না: শিক্ষামন্ত্রী   করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে থাকলে চলতি বছরেই প্রাথমিকের লিখিত পরীক্ষা   ২৭ সেপ্টেম্বরের পর খুলছে বিশ্ববিদ্যালয়   নবম-দশমে বিভাগ বিভাজন থাকবে না   বিশ্ববিদ্যালয় খোলার বিষয়ে বৈঠক চলতি সপ্তাহেই   ১৮ মাস পর মুখর বরিশালের স্কুল-কলেজ; খুশি শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা   শিক্ষার্থীদের বেতন নিয়ে অভিভাবকদের যেন চাপ দেওয়া না হয়: শিক্ষামন্ত্রী   করোনা সংক্রমণ বাড়লে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পুনরায় বন্ধ করে দেয়া হবে: শিক্ষামন্ত্রী   সংক্রমণ বাড়লে ফের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী   বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের পরিবহণ-আবাসিক খরচ মওকুফ   শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দ্বার খুলতে বিকেলে বসছে আন্তঃমন্ত্রণালয়ে উচ্চপর্যায়ের বৈঠক   বরিশালে বন্ধ স্কুল-কলেজে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা শুরু   ১২ সেপ্টেম্বর খেকে খুলবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান   দেশের সব স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী   আগামী অক্টোবরে স্কুল-কলেজ খোলার ঘোষণা আসতে পারে   আজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে দুই মন্ত্রণালয়ের বৈঠক