Youtube google+ twitter facebook Bangla Font Help

বরিশালে মসজিদের উপরের বিদ্যুৎ লাইন সড়িয়ে নেয়ার দাবীতে মুসল্লীদের মানববন্ধন

১২:৩৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক :: নারায়নগঞ্জ ট্রাজিডির মত দ্বিতীয় অঘটনের আগেই মসজিদের নামাজী-মুমসল্লীদের রক্ষা করার দাবিতে বরিশাল-ঢাকা মহা সড়ক ও বিভাগীয় কমিশনার কার্যলয় সংলগ্ন নগরীর কাশিপুর ইছাকাঠি বায়তুন নুর জামে মসজিদের ছাদের উপর থেকে ১১ হাজার কেভি ভোল্টের বিদ্যুতের লাইন সড়িয়ে অনত্র নেয়ার দাবী করে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে স্থানীয় মুসল্লী গণ।

আজ শুক্রবার বেলা সাড়ে ১২ টায় বরিশাল-ঢাকা মহাসড়ক নগরের কাশিপুর ইছাকাঠি নামক স্থানে একর্মসূচি পালিত হয়।

বায়তুন নুর জামে মসজিদের মুতাওয়ল্লী (জমিদাতা) বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোয়াজ্জেম হোসেন কামাল মুন্সির সভাপতিত্বে এসময় মানববন্ধন কর্মসূচিতে আরো বক্তব্য রাখেন, মসজিদ কমিটির সভাপতি আবু হানিফ,বায়তুন নুর জামে মসজিদের খতিব আলহাজ্ব হাফেজ মাওঃ শাইখ হাসনাইন মাহমুদ সিদ্দিকী প্রমুখ।

এসময় বিভিন্ন মুসল্লী ও মসজিদ কমিটির নেতৃবৃন্দ বলেন, মসজিদের মুসল্লীদের জীবনের দিকে তাকিয়ে এই ভয়ানক বিপদজনক হাই ভোল্টের বিদ্যুতের তার সরিয়ে নিয়ে মুসল্লীদের জীবন রক্ষা করার কথা বলেন। তারা আরো বলেন ইতি পূর্বে এই মসজিদের সহকারী ইমাম সহ একাধিক মুসল্লীরা বিদ্যুতের কারনে আহত হয়েছে।

এখনো যদি মসজিদের ছাদের উপর থেকে লাইন অপসারন করা না হয় তাহলে যেকোন মুহুর্তে নারায়নগঞ্জ ট্রাজেডির মত দূর্ঘটনার থেকেই যাচ্ছে বিপর্যয় ঘটে যেতে পাড়ে যেকোন মুহুর্তে।

অন্যদিকে মানববন্ধনের সভাপতি জমিদাতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মোয়াজ্জেম হোসেন কামাল মুন্সি বলেন, আমাদের ওয়াকফকৃত জমিতে মসজিদটি স্থাপিত করা হয়েছে।

ইতি পূর্বে আমাদের জমির উপর বিদ্যুতের খুঁটি স্থাপন ও মসজিদের ছাদের উপর দিয়ে ১১ হাজার ভোল্টের লাইন টেনে নেয়ার কারনে একদিকে মুসল্লীরা ছাদে নামাজ আদায় করতে পারে না।

অন্যদিকে খঁটির কারনে মসজিদটি বড় করা যাচ্ছেনা। এব্যাপারে তৎকালীন আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে বিদ্যুৎ সচিব অরবিন্দ কর নিজেও লাইন সড়িয়ে নেয়ার কথা বলার পরও আজ পর্যন্ত তা কার্যকর করা হয়নি।

এব্যাপারে বহুবার বিভিন্ন প্রশাসনিক দপ্তরে আবেদন করার পরও কোন দপ্তর থেকে মসজিদের উপর থেকে লাইন সরানোর জন্য কেহ উদ্যোগ গ্রহন করেনি।

এব্যাপারে ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্টিবিউশন (২) এর নির্বাহী প্রকৌশলী অমূল্য সরকারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এই লাইনগুলো ত্রিশ পয়ত্রিশ বছরের লাইন। আবেদন করা হলেইতো লাইন বিদ্যুতের খঁটি সরিয়ে নেয়া যায় না। তাছাড়া যেকোন স্থাপনা করার আগেই ভাবতে হবে।

এছাড়াএখানে যখন বিদ্যুতের কার্যক্রম করা হয় তখন মসজিদ স্থাপনা ছিলনা। এরকম লাইন বরিশাল শহরের অনেক রয়েছে। সড়িয়ে নিতে হলে পাশে জমি থাকতে হবে।

আমরা অনেক তদন্ত করে দেখেছি কিন্তু জায়গার অভাবে পারছি না। আপনার শহরে বিদ্যুতের প্রয়োজন রয়েছে। বিদ্যূৎ ছাড়া এই শহরের অবস্থা কি হবে।

তবে বরিশালে বিদ্যুতের এই অবস্থা থাকবে না। ২০২১ সালে বরিশালে সকল বিদ্যুতের লাইন আন্ডার গ্রাউন্ডে নিয়ে যাওয়া হবে।

বরিশাল হবে বিদ্যুতের একটি মডেল শহর।

[addthis tool="addthis_inline_share_toolbox_nev1"]

পাঠকের মন্তব্য

rss goolge-plus twitter facebook
Design & Developed By:

উপদেষ্টা মন্ডলির সভাপতি- ফারজানা ইয়াসমিন রিমি
উপদেষ্টা : মোঃ আসাদুজ্জামান । খন্দকার রাকিব
প্রকাশক ও সম্পাদক  : এম. জাহিদ 
উপ-সম্পাদক : শফিকুল ইসলাম রাতুল মৃধা
সহ- সম্পাদক : খন্দকার রাজিব
সহ- ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মোঃ জসিম শরীফ

ই-মেইল: ,

  • বার্তা ও বানিজ্যিক কার্যালয়-

ভূইয়া ভবন, ৩য় তলা

ফকিরবাড়ী রোড, বরিশাল।

  • যোগাযোগ- ০১৭৯২০৫৯০৩২

ই-মেইল: mjahidbsl@gmail.com

টপ
  মাধ্যমিকে বার্ষিক পরীক্ষা বাতিল   ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা হবে সশরীরে   প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ   ২৫ ডিসেম্বরের মধ্যে এইচএসসির ফল   উন্নয়নের ধারাকে ধরে রাখতে শিক্ষার বিকল্প নেই   ১৭ অক্টোবর থেকে কিন্ডারগার্টেন খোলার দাবি   আগের ক্লাসের ফলের ভিত্তিতে মাধ্যমিকে পরবর্তী ক্লাস!   আসামিরা গ্রেফতার না হওয়া পর্যন্ত অনশন চালিয়ে যাবেন ঢাবির সেই ছাত্রী   করোনাঃ এসএসসি পরীক্ষা আয়োজন অনিশ্চিত   প্রাথমিকে শিক্ষক বদলি চলতি মাসেই    মৃত ব্যাক্তির নামে ব্যাংকে বেতন বিল দাখিল   আরও বাড়ছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি!   এইচএসসি পরীক্ষা প্রস্তুতি নেবে শিক্ষা বোর্ড   জেলা পর্যায়ে ২৫ শতাংশ প্রাথমিক বিদ্যালয় খুলে দেয়ার প্রস্তাব   প্রাথমিক বিদ্যালয় খুলতে প্রস্তুতি শুরুর নির্দেশ   একাদশ শ্রেনীর পাঠ্যবই নিয়ে শংকায় শিক্ষার্থীরা   বরিশালের ২২টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক সংকট ভয়াবহ   ভর্তি কার্যক্রম শুরু একাদশে   বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের আয়োজনে অনলাইনে ‘বঙ্গবন্ধু অলিম্পিয়াড   শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো ৩১ আগস্ট পর্যন্ত