বিকাল ৫:২৩ ; বৃহস্পতিবার ; ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
facebook Youtube google+ twitter
×

কেন সবসময় ইসরাইলের পাশে যুক্তরাষ্ট্র?

১১:১৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০২৩

ইসরাইলের সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ বন্ধু যুক্তরাষ্ট্র। একেবারে গলা গলায় ভাব। চলমান ইসরাইল-হামাস যুদ্ধে নজর দিলেই এ কথার প্রমাণ মেলে। যুদ্ধে ইসরাইলের প্রতি সমর্থনের কোনো কমতি রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র। মধ্যপ্রাচ্যের ‘মরুঝড়’ ঠেকাতে ঢাল হয়ে দাঁড়িয়েছে ইসরাইলের পাশে। ইতোমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন অত্যাধুনিক অস্ত্র, গোলাবারুদ ভর্তি বিমান, হাজার হাজার সেনা সবই পাঠিয়েছেন। শুক্রবার জাতির উদ্দেশে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ইসরাইলকে আরও সহায়তা দেবেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের ইসরাইলপ্রীতি ও সমর্থন সূচনা নতুন নয়। বহু বছর আগের। প্রায় ৭৫ বছর ধরে ওয়াশিংটন ইসরাইলকে বড় আকারের সামরিক, অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক সমর্থন দিয়ে আসছে। এমনকি গাজায় ইসরাইলি হামলা নিন্দাজনক হওয়া সত্ত্বেও অন্ধের মতো শুধু ইসরাইলকেই সমর্থন করে যাচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে সবার মনে ঘুরেফিরে শুধু একই প্রশ্নের খই কেন সবসময় ইসরাইরের পাশে যুক্তরাষ্ট্র?

ইসরাইলের পলিসি ফোরামের একজন মধ্যপ্রাচ্য বিশ্লেষক মাইকেল কোপলো বলেছেন, ইসরাইলের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের জোট দুটি মূল কারণের জন্য স্থায়ী হয়েছে, গোয়েন্দা তথ্য ভাগ করে নেওয়া এবং আদর্শিক ঐক্য। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের মধ্যে রাজনৈতিক মতপার্থক্য থাকা সত্ত্বেও গাজায় যুদ্ধের প্রাদুর্ভাব আবারও নিশ্চিত করেছে, যুক্তরাষ্ট্র এবং ইসরাইল আগের মতোই শক্তভাবে আবদ্ধ রয়েছে। ছয় দশকেরও বেশি সময় ধরে রাষ্ট্র-নির্মাণের সময় থেকে শুরু করে রাজনৈতিক অনুপ্রেরণা, আর্থিক ও সামরিক সহায়তা ও কূটনৈতিক সমর্থনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে পাশে পেয়েছে ইসরাইল।

বন্ধুত্বের শুরুটা ১৯৪৮ সালে। ওই বছরের ১৮ মে ইসরাইল প্রতিষ্ঠার পর সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট হ্যারি এস ট্রুম্যান প্রথম ইসরাইলকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসাবে স্বীকৃতি প্রদান করেন। কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপিত হয়েছিল যখন মার্কিন রাষ্ট্রদূত জেমস গ্রোভার ম্যাকডোনাল্ড ১৯৪৯ সালের ২৮ মার্চ তার প্রমাণপত্র উপস্থাপন করেছিলেন। তারপর থেকে ধীরে ধীরে ইসরাইল যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য অংশীদার হয়ে উঠে এবং এখনো রয়ে গেছে। ওয়াশিংটন হয়ে ওঠে ইসরাইলের সামরিক সাহায্যের সবচেয়ে বড় দাতা। তবে সে সময় সম্পর্কে বিশেষ উন্নতি না হলেও পরবর্তীতে সম্পর্ক গভীর হতে থাকে। বিশেষ করে ১৯৬৭ সালের যুদ্ধের পর থেকে সম্পর্কটি বিকাশ লাভ করতে শুরু করে।

সেই যুদ্ধে ইসরাইল আরব রাষ্ট্রগুলোর (মিসর, সিরিয়া ও জর্দান) বিরুদ্ধে জয় লাভ করে। যুদ্ধে ইসরাইল আমেরিকার কোনো সামরিক সহায়তা ছাড়াই ছয় দিনের মধ্যে আরবদের পরাজিত করেছিল। ইসরাইল জয় লাভের পর সিরিয়া ও মিসরের কিছু অংশ দখল করে। এরপর ফিলিস্তিনের কিছু অঞ্চলও দখলে নেয়। তখন থেকে যুক্তরাষ্ট্র ইসরাইলকে দ্ব্যর্থহীনভাবে সমর্থন করা শুরু করে। সম্পর্ক বেশ গাঢ় হতে থাকে। ১৯৭৩ সালের দিক থেকে ইসরাইলকে প্রকাশ্যে সহায়তা করা শুরু করে। যুক্তরাষ্ট্র ঐতিহাসিক এবং সাংস্কৃতিক বন্ধনের পাশাপাশি পারস্পরিক স্বার্থের দ্বারা ঘনিষ্ঠভাবে আবদ্ধ। মূলত এতে যুক্তরাষ্ট্রেরও অনেকটা স্বার্থ জড়িত ছিল। আরব দেশগুলোর বৈরী আচরণ প্রতিহত করতে যুক্তরাষ্ট্র এ পথ বেছে নেয়। এমনকি তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ও কূটনীতিকরা বুঝতে পেরেছিলেন, মধ্যপ্রাচ্যে সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রভাব কমাতে ইসরাইল কার্যকরী অস্ত্র হতে পারে।

প্রথমদিকে যুক্তরাষ্ট্র বেশিরভাগ অস্ত্র ইসরাইলিদের কাছে বিক্রি করত। সেই সঙ্গে তাদের উন্নয়ন প্রচেষ্টাকে সমর্থন করার জন্য মার্কিন ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার অনুমতি দিয়েছিল। ১৯৮০ এবং ৯০-এর দশকে যুক্তরাষ্ট্র এবং ইসরাইল অস্ত্রে গবেষণা, উন্নয়ন ও উৎপাদনে সহযোগিতা শুরু করে। মার্কিন সহায়তা ইসরাইলি অস্ত্রের সক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করেছে। ২০১৯ সালে স্বাক্ষরিত একটি স্মারকলিপির অধীনে ইসরাইল প্রতিবছর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে ৩.৮ বিলিয়ন ডলার সামরিক সহায়তা পায়। এটি ২০২২ সালে ইসরাইলের মোট সামরিক বাজেটের প্রায় ১৬ শতাংশ। আর্থিক সহায়তা ছাড়াও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যৌথ সামরিক অনুশীলন, সামরিক গবেষণা এবং অস্ত্র উন্নয়ন অন্তর্ভুক্ত করতে ইসরাইলের সঙ্গে উচ্চপর্যায়ের বিনিময়ে অংশগ্রহণ করে।

যুক্তরাষ্ট্র ইসরাইলের বৃহত্তম একক ব্যবসায়িক অংশীদার। ইসরাইলে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ পাঁচটি রপ্তানি হলো- হীরা, যন্ত্রপাতি, কৃষিপণ্য, বিমান এবং অপটিক ও চিকিৎসা যন্ত্র। ইসরাইল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ পাঁচটি আমদানি হলো- হীরা, ওষুধ পণ্য, যন্ত্রপাতি, অপটিক এবং চিকিৎসা যন্ত্র এবং কৃষিপণ্য। ইসরাইলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রত্যক্ষ বিনিয়োগ মূলত উৎপাদন খাতে। দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণের জন্য যুক্তরাষ্ট্র এবং ইসরাইল ১৯৮৫ সালে একটি মুক্ত বাণিজ্য চুক্তি করে। অর্থনৈতিক সহযোগিতার সুবিধার্থে উভয় দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা এবং আগামী বছরের সম্ভাব্য অর্থনৈতিক সংস্কার নিয়ে আলোচনা করার জন্য দুই দেশ প্রতিবছর একটি যৌথ অর্থনৈতিক উন্নয়ন গ্রুপ গঠন করে।

তবে ইসরাইল যে শুধু মার্কিন সাহায্যের ওপর নির্ভর করে এমনটিও নয়। যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টারন্যাশনাল ক্রাইসিস প্রুপের পরিচালক মাইকেল হান্না বলেছেন, ‘দুই দেশের সম্পর্কটি ইসরাইলি সশস্ত্র বাহিনীর পরিচালনার অগ্রগতিতে একটি বিশাল ভূমিকা পালন করেছে। ইসরাইলও নিজ প্রচেষ্টায় বিশ্বের বৃহত্তম সামরিক রপ্তানিকারক হিসাবে গড়ে উঠেছে। মার্কিন সক্ষমতাও এখন কিছুটা ইসরাইলের ওপর নির্ভরশীল হয়ে উঠেছে। এছাড়াও মধ্যপ্রাচ্যের বিষয়ে ইসরাইলের গোয়েন্দা তথ্য সব উপায়ে যুক্তরাষ্ট্রকে উপকৃত করে। কয়েক দশক ধরে গোয়েন্দা বিশ্লেষকরা ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনীর ৮২০০ ইউনিটকে বিশ্বের অন্যতম অভিজাত হিসাবে বিবেচনা করেছেন। উভয় দেশের সামরিক-শিল্প নজরদারি কমপ্লেক্সগুলোও খুব শক্তভাবে জড়িত। ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রেও কার্যকর সিস্টেম তৈরি করতেও যুক্তরাষ্ট্র এবং ইসরাইল একসঙ্গে কাজ করেছে।

এত বছর ধরে ইসরাইলের প্রতি এখনো অটুট বন্ধন ধরে রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র, যা গাজা যুদ্ধে আবারও প্রমাণ দেয়। কয়েক দশকের মধ্যে ফিলিস্তিন রাজনৈতিক সংগঠন হামাসের অভিযানের প্রতিক্রিয়া হিসাবে গাজাকে সম্পূর্ণ অবরোধ করার নির্দেশ দেয় ইসরাইল। পাশাপাশি একের পর এক বিমান হামলাও চালায়। যার ফলে গাজায় হাজার হাজার মানুষ নিহত হয়েছে। ছাড় দেওয়া হচ্ছে না শিশুদেরও। ইসরাইল একটি স্থল আক্রমণের জন্যও জোরেশোরে প্রস্তুতি নিচ্ছে। গাজার হাসপাতালে ভয়াবহ হামলা চালিয়েছে। বেসামরিকদের উত্তর গাজা থেকে সরিয়ে নেওয়ার জন্য ২৪ ঘণ্টা সময়সীমা দিয়েছে। জাতিসংঘ যেটিকে অসম্ভব বলে অভিহিত করেছে। অনেক রাষ্ট্র এসব কার্মকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে। অথচ যুক্তরাষষ্ট্র তা সত্ত্বেও ইসরাইলকে তার নিঃশর্ত সাহায্য অব্যাহত রেখেছে।

আন্তর্জাতিক
[addthis tool="addthis_inline_share_toolbox_nev1"]

আপনার মতামত লিখুন :

প্রকাশক ও সম্পাদক: এম.জাহিদ
যুগ্ম সম্পাদক: মোঃ আরিফ খান
বার্তা সম্পাদক: আরিফুল ইসলাম
নির্বাহী সম্পাদকঃ শুভ কুন্ডু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ জহিরুল ইসলাম
মোবাইলঃ ০১৭১২-৬৮৮৬৬১
বার্তা বাণিজ্যিক কার্যালয়ঃ ভুইয়া ভবন (৩য় তলা) ফকিরবাড়ী রোড, বরিশাল -৮২০০

ই-মেইল: formalnewsbsl@gmail.com
টপ
  বরিশালে ক্লাস ফাঁকি দিয়ে পার্কে আড্ডা দেয়ায় অর্ধশত শিক্ষার্থী আটক   সরকারকে ক্ষমতায় রেখে জনগণের মুক্তি সম্ভব না: চরমোনাই পীর   বরিশালে প্রধানমন্ত্রীর জনসভায় শাম্মী-পঙ্কজ অনুসারীদের সংঘর্ষ, একজনের মৃত্যু   বরিশালে ডেঙ্গুতে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু   প্রতারক মাকসুদকে ধরিয়ে দিন   বরিশালে কাবিনের টাকা নিয়ে বনিবনা না হওয়ায় পালালো প্রেমিক   এস.এম জাকির হোসেনের মায়ের মৃত্যুতে বিভিন্ন সংগঠনের শোক   ৫০ বছরের বেশি সময় ধরে বরিশালে সাংবাদিকতায় আলো ছড়িয়েছেন এসএম ইকবাল   বরিশালের সেই মাদক সম্রাট রাসেল মেম্বর এবার ইয়াবার বড় চালানসহ গ্রেপ্তার   নিষেধাজ্ঞা নিয়ে ‘বিরক্ত’ জেলেরা, তবুও ছাড়তে পারেন না পেশা   আওয়ামী লীগ দেশকে অনিবার্য সংঘাতের দিকে ঠেলে দিয়েছে: চরমোনাই পির   এক সপ্তাহ পরেই শীতের আমেজের আভাস   আবার সরকারে এলে ফরিদপুরে বিশ্ববিদ্যালয় করে দেবো: প্রধানমন্ত্রী   ১৯৭০ সালে জন্ম, ১৯৭৫ সালে এসএসসি পাস করেছেন ঝালকাঠির শিক্ষক মোবারক!   যাত্রী সংকটে বরিশাল বিমানবন্দরের ভবিষ্যৎ অনিশ্চয়তার মুখে   আজ সাংবাদিক এম.জাহিদ এর জন্মদিন   বরিশালে সাংবাদিকদের ওপর হামলাকারী চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আল্টিমেটাম   বদলি হলেন ওসি, সঙ্গে নিলেন থানার সোফা, এসি, টেলিভিশন   মনপুরায় ফের সাবেক ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ, থানায় মামলা   ভান্ডারিয়ায় নার্স-আয়াদের টানাটানিতে নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ